বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর নির্মাণ প্রকল্পের সম্ভাব্যতা যাচাই চলছে

জাতীয় সংসদের সরকারি প্রতিষ্ঠান কমিটির সভায় জানানো হয় ঢাকার আশে পাশে সর্বাধুনিক আন্তর্জাতিক মান সম্পন্ন ‘বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর’ নির্মাণ প্রকল্পের সম্ভাব্যতা যাচাইয়ের কাজ চলছে।
সংসদ ভবনে আজ কমিটির সভাপতি আ স ম ফিরোজের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় আরো জানানো হয় জাপানী পরামর্শক প্রতিষ্ঠান নিপ্পন কোই কোম্পানি লিমিটেড এ কাজ করছে।
সভায় জানানো হয়, দেশের অর্থনৈতিক উন্নয়ন তথা বিশ্বে বাংলাদেশকে বিমান চলাচলের ক্ষেত্রে প্রাচ্য ও পাশ্চাত্যের কেন্দ্রবিন্দু হিসেবে গড়ে তোলাসহ প্রতিবেশী দেশের সাথে আকাশপথে যোগাযোগ ব্যবস্থার অধিকতর উন্নয়নের লক্ষ্যে ঢাকার আশে পাশে সর্বাধুনিক আন্তর্জাতিক মান সম্পন্ন এ বিমান বন্দর স্থাপনের পরিকল্পনা নেয়া হয়েছে।
কমিটির সদস্য মোস্তাফিজুর রহমান, ইসমাত আরা সাদেক, মো. মাহবুব উল আলম হানিফ, মির্জা আজম, মোহাম্মদ নজরুল ইসলাম এবং মুহিবুর রহমান মানিক সভায় অংশগ্রহণ করেন।
বন্যার কবল থেকে হাওড় অঞ্চলের ফসল রক্ষার্থে পানি উন্নয়ন বোর্ডের গৃহীত কার্যক্রম এবং বিমান বন্দরের বিষয়ে বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষ থেকে নেয়া পদক্ষেপ নিয়ে সভায় বিস্তারিত আলোচনা করা হয়।
সভায় জানানো হয়, সুনামগঞ্জ, সিলেট, মৌলভীবাজার, হবিগঞ্জ, নেত্রকোণা ও কিশোরগঞ্জ জেলাধীন বিভিন্ন হাওড় অঞ্চলে বোরো ফসল আগাম বন্যার কবল হতে রক্ষার্থে বাংলাদেশ পানি উন্নয়ন বোর্ড এ পর্যন্ত বিভিন্ন প্রকল্পের আওতায় মোট ৫২টি হাওড়সহ অন্যান্য হাওড় উপ-প্রকল্পের ডুবন্ত বাঁধ নির্মাণ করেছে।
সভায় আরো জানানো হয়, ডেল্টা প্যান-২১০০ বাস্তবায়নের লক্ষ্যে বাংলাদেশের ৬৪টি জেলায় খাল, জলাশয় ও ছোট নদীগুলোর নাব্যতা বৃদ্ধি, পানি ধারন ক্ষমতা বাড়ানো, গ্রাউন্ড ওয়াটার রিচার্জ ও জীব-বৈচিত্র্য সংরক্ষণের লক্ষ্যে ছোটনদী, খাল, জলাশয় পুনঃখননে প্রকল্প প্রণয়ন করা হয়েছে।
পানি সম্পদ মন্ত্রণালয়ের সচিব, বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিবসহ মন্ত্রণালয় এবং জাতীয় সংসদ সচিবালয়ের সংশ্লিষ্ট উর্ধ্বতন কর্মকর্তাবৃন্দ বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন।