স্মিথের ৮৯ রান নিউজিল্যান্ডের কাছে হার এড়াতে পারল না

স্টিভ স্মিথের অপরাজিত ৮৯ রানের পরও নিউজিল্যান্ডের কাছে হার এড়াতে পারলনা অস্ট্রেলিয়া।বিশ্বকাপের আগে দ্বিতীয় অনুশীলন ম্যাচে উইল ইয়ং এর ১৩০ রানের সুবাদে খর্ব শক্তির নিউজিল্যান্ডের কাছে সাত উইকেটে পরাজিত হয়েছেন বর্তমান চ্যাম্পিয়ন অস্ট্রেলিয়া।
সফরকারীরা ১০ বল বাকি থাকতেই ২৭৮ রানের লক্ষ্যে পৌঁছে গেলে দশম ওয়ানডে ম্যাচে প্রথম পরাজয়ের স্বাদ পায় অস্ট্রেলিয়া। অবশ্য এ ম্যাচটি আন্তর্জাতিকভাবে স্বীকৃত নয়।
বিশ্বকাপে নিউজিল্যান্ডে দলে জায়গা না পাওয়া ইয়ং তার ১৩২ বলের ইনংিসে ১১টি বাউন্ডিারি এবং ২টি ওভার বাউন্ডারি হাকান।
অস্ট্রেলিয়ার ৬ উইকেটে করা ২৭৭ রানের জবাবে জর্জ ওর্কারের(৫৬) এবং টম লাথামের অপরাজিত ৬৮ রানের সুবাদে কেন উইলিয়ামসন, মার্টিন গাপটিল এবং ট্রেন্ট বোল্ট ছাড়া কিউইরা ৩ উইকেট হারিয়ে ২৮৩ রানে পৌঁছে যায়।
ইনজুরি কাটিয়ে দীর্ঘ দিন পর এ ম্যাচেই মাঠে নামেন অস্ট্রেলিয়ান পেস সুপারহেড মিচেল স্টার্ক। মাঠ ত্যাগ করার আগে নিজের ট্রেডামার্ক ইয়র্কারের সাহায্যে ৫ ওভারে ১৪ রানে ২ উইকেট শিকার করেন তিনি।
ইনজুরির কারণে তিন মাস মাঠের বাইরে থাকার পর এটা ছিল তার প্রথম ম্যাচ।
এর আগে বল টেম্পারিং কেলেঙ্কারীর কারণে এক বছরের নিষেধাজ্ঞা কাটিয়ে মাঠে ফিরে নিজের দ্বিতীয় ম্যাচে চারটি ছক্কাতে অপরাজিত ৮৯ রান করেন স্মিথ।
শন মার্শ ২৮ রানে আউট হলে মাঠে আসেন স্মিথ। ইংল্যােন্ড অনুষ্ঠেয় বিশ্বকাপে শিরোপা অক্ষুন্ন রাখতে তার ফর্মে ফেরাটা অস্ট্রেলিয়ার জন্য মূল্যবান বিষয়।
ফর্মে থাকা উসমান খাজা এবং গ্লেন ম্যাক্সওয়েল করেন যথাক্রমে ৫৬ ও ৫২ রান।
তবে শিরিস কাগজ কেলেঙ্কারীর কারণে নিষিদ্ধাদেশ কাটিয়ে মাঠে ফেরা আরেক তারকা ডেভিড ওয়ার্নার সোমবার প্রথম ম্যাচে ৩৯ রান করলেও এ ম্যাচে ডাক মেরেছেন।
খাজার পরিবর্তে এ ম্যাচে এ্যারন ফিঞ্চের সঙ্গে ওপেনিং করতে নামেন ওয়ার্নার। তবে ছয় বল মোকাবেলা করে কোন রান করার আগেই তাকে প্যািিভলিয়নে ফিরতে হয়।
প্রথম ম্যাচে অস্ট্রেলিয়া ১ উইকেটে জয়ী হয়েছিল। তৃতীয় ও শেষ ম্যাচটি অনুষ্ঠিত হবে শুক্রবার এলান বোর্ডার ফিল্ডে।