পাইকগাছায় গৃহবধু হত্যার অভিযোগ : স্বামী, শ্বশুর ও শাশুড়ি আটক

পাইকগাছা ব্যুরো ॥
পাইকগাছায় শারীরিক নির্যাতনের পর মুখে বিষ ঢেলে গৃহবধু নাজমা (২৮) কে হত্যার অভিযোগে পাইকগাছা থানায় মামলা হয়েছে। পুলিশ স্বামী, শ্বশুর, শাশুড়িকে আটক করেছে। নাজমা উপজেলার সোনাতনকাটির লিয়াকত মীরের স্ত্রী। এ ঘটনায় নিহতের পিতা কালু মিয়া বাদী হয়ে ৭ জনের নামে এ মামলা করেন। আসামীরা হলেন, স্বামী লিয়াকত আলী, ভাসুর সাকাত আলী, শ্বশুর রাজ্জাক, চাচা শ্বশুর সাজ্জাদ আলী মীর, দেবর হাসান আলী, শাশুড়ি আকলিমা বেগম, খালা শাশুড়ি মমো বেগম। নাজমার পিতার অভিযোগ, তার জামাতা, শ্বশুর, শাশুড়ি যৌতুকের জন্য তাকে প্রায়ই চাপ সৃষ্টি করত। বিয়ের পর ৮ বছর ধরে তাকে নানাভাবে অত্যাচার করছে। শনিবার দুপুরে নাজমাকে তার শাশুড়ি আকলিমা বেগম, খালা শাশুড়ি মমো বেগম মারপিট করে গুরুতর আহত করে। পরে তার গালে বিষ দিয়ে হত্যা করে বলে থানায় লিখিত অভিযোগে জানা যায়। এ ব্যাপারে নিহতের শ্বশুর রাজ্জাক জানায়, সে বিষপানে আত্মহত্যা করেছে। তালা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হলে সেখানে তার মৃত্যু হয়। হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ তালা থানার মাধ্যমে লাশটি ময়না তদন্ত শেষে পরিবারের কাছে হস্তান্তর করেন। ওসি এমদাদুল হক শেখ বলেন, নাজমার পিতা বাদী হয়ে থানায় এজাহার দিয়েছে। ময়না তদন্তের রিপোর্ট হাতে না পাওয়া পর্যন্ত মন্তব্য করা সম্ভব হয়নি।